মঙ্গলবার, ৩১ মে, ২০২২

যত্ন নাও বয়স্কদের : ম্যাকাউটের স্কুল কানেক্ট বিভাগের উদ্যোগ

 

যত্ন নাও বয়স্কদের 


ব্যবস্থাপনায়: স্কুল কানেক্ট বিভাগম্যাকাউট, পশ্চিমবঙ্গ




 রাতে ঠাকুমার কাছে গল্প শুনতে শুনতে ঘুমিয়ে পড়া আর পরের দিন সকালেই দাদুর হাত ধরে আনন্দে বাইরে বেরিয়ে পড়া।

                                                                           
                                                                                    ভরসার ছোঁয়া .................
.


     

শৈশবের সেই সব মুহূর্তগুলি  আমাদের অধিকাংশের জীবনের অমূল্য স্মৃতি। কিন্তু  সময় যত এগোতে থাকে শৈশবের সেই ভালবাসার মানুষগুলিও ততই জীবনের শেষ প্রান্তে পৌঁছতে থাকে। কুঁচকে যাওয়া চামড়ার কেঁপে ওঠা হাত তখনও তাঁরা বাড়িয়ে দেন আশীর্বাদের জন্য। জুগিয়ে যান মানসিক শক্তি।

 

হ্যাঁ তাঁরা। আমাদের বাড়ির বয়স্করা।

 


তিনি হতে পারেন দাদু, ঠাকুমা বা পরিচিত যে কেউ।  এই সমস্ত মানুষের কাছে শুধু আমরাই নই, চিরকৃতজ্ঞ গোটা সমাজ। যাঁদের তৈরি করা সমাজের বুনিয়াদের ওপরে আমরা এগিয়ে চলেছি।

  

মনে রাখতে হবে, জীবনের সায়াহ্নে এসে তাঁরাও চান শুধু এক চিলতে ভালবাসা। একটু যত্নেই তাঁদের মনও প্রফুল্ল হয়।

 

 তাই হাজারো ব্যস্ততার মাঝেও চলুন তাঁদের জন্য একটু সময় রাখি। বাড়িয়ে দিই যত্ন-ভালবাসার হাত। এই কাজ শুরু করুক ছাত্রছাত্রীরাই।


সেই লক্ষ্যেই মৌলানা আবুল কালাম আজাদ প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের মাননীয় উপাচার্য অধ্যাপক সৈকত মৈত্র মহাশয়ের পরামর্শে এক অভিনব উদ্যোগের পথে ম্যাকাউটের স্কুল কানেক্ট বিভাগ।  

 এই উদ্যোগের মূল কথা - স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়ারা এগিয়ে আসুকযত্ন নিক বয়স্কদের, তাঁদের ভরিয়ে তুলুক ভালবাসায়। আর তাদের সঙ্গে নিজেদের ছবি তুলে পাঠিয়ে দিক আমাদের কাছে।

     স্নেহের পরশ .....


 

কী করতে হবে পড়ুয়াদের ?

 ১. বাড়ির বয়স্কদের যত্ন নিতে হবে

২. কীভাবে পড়ুয়ারা এই সমস্ত বয়স্ক মানুষদের যত্ন নিচ্ছে সেই ছবি তুলে গুগল লিঙ্কে আপলোড করতে হবে। যত্নের মুহূর্তের ছবিই প্রয়োজন .

৩. যত্ন করার পদ্ধতি কয়েক লাইন লিখে পাঠাতে হবে। 

৪. বাড়ির কোনও বয়স্ক মানুষ না থাকলে কোনও পরিচিত বয়স্কদের যত্ন নেওয়া যেতে পারে

৫. বয়স্কের অবশ্যই ৬০-এর বেশি বয়স হতে হবে.

এই লিঙ্কে ছবি আপলোড করো


https://forms.gle/5aCroU2iTHYeYD9P7

 

ছবি জমা দেওয়ার শেষ তারিখ ৭ জুন, ২০২২ 


যারা এই উদ্যোগে অংশ নেবে তাদের পাঠানো ছবি এবং লেখা যদি আমাদের বিচারে য্থায্থ মনে হয় একমাত্র তবেই তাদের শংসাপত্র দেওয়া হবে..

 

ম্যাকাউটের কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়াদের ক্ষেত্রে এই শংসাপত্র MAR হিসেবে গণ্য হবে 


                                      মৌলানা আবুল কালাম আজাদ প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, পশ্চিমবঙ্গ 

                                                                        হরিণঘাটা , নদিয়া 




ধন্যবাদ 



কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

নতুন আঙ্গিকে 'বিজ্ঞানের দিশারী',

নতুন আঙ্গিকে ' বিজ্ঞানের দিশারী '    পরিচালনায়ঃ স্কুল কানেক্ট বিভাগ, মৌলানা আবুল কালাম আজাদ প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় , পশ্চিমবঙ্গ ...