বুধবার, ১৫ জুলাই, ২০২০

শিক্ষা ব্যবস্থার পরিবর্তন ও চাকরির নতুন সম্ভাবনা নিয়ে উপাচার্য

সরাসরি উপাচার্য

 



 মাননীয় উপাচার্য অধ্যাপক সৈকত  মৈত্র মহাশয়

 মঙ্গলবার ১৪ জুলাই, বাংলা ওয়ার্ল্ডওয়াইডের ব্যবস্থাপনায় অনলাইনে এই অনুষ্ঠান হয়।  সেখানে বহু পড়ুয়া এবং তাদের অভিভাকরা চ্যাট বক্সে তাদের নানা প্রশ্ন করেন। মৌলানা আবুল কালাম আজাদ প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের মাননীয় উপাচার্য অধ্যাপক সৈকত  মৈত্র মহাশয় স্বয়ং সেই প্রশ্নের উত্তর দেন। আগামীদিনের শিক্ষা ব্যবস্থা সম্পর্কে তিনি পরামর্শ দেন। গোটা শিক্ষা ব্যবস্থা কোন দিকে সেই সম্পর্কেও তিনি পড়ুয়াদের দিশা দেখান। এই অনুষ্ঠানে ছিলেন ম্যাকাউটের পরীক্ষা নিয়ামক (ড.) শুভাশিস দত্ত। তিনিও সবিস্তারে পড়ুয়াদের পরীক্ষা সম্পর্কিত নানা তথ্য দেন।  এই আলোচনায় উপস্থিত ছিলেন বিভিন্ন কলেজের কয়েক জন কর্মকর্তা। পুরো অনুষ্ঠানটির পরিচালনা করেন বিশিষ্ট সাংবাদিক ও কলকাতা প্রেসক্লাবের মাননীয় সভাপতি স্নেহাশিস শূর।    

মাননীয় উপাচার্য মহাশয় জানান , গোটা দেশে পরবর্তী পরিস্থিতিতে চাকরির নতুন ক্ষেত্র তৈরী হচ্ছে।  তার জন্য পড়ুয়াদের তৈরী হতে হবে।  সেই ক্ষেত্রে শিক্ষকদেরও একটা বড় ভূমিকা থাকে। চাকরির বাজার যেভাবে পরিবর্তিত হচ্ছে তার সঙ্গে পড়ুয়ারা যেন নিজেদের আপডেট করে নেয়  সেই পরামর্শ দেন উপাচার্য মহাশয়।  তিনি জানান, দশ বছর পরে এমন কিছু কাজের সৃষ্টি হবে যেটা এখন এই সময়ে ভেবে রাখা বেশ কঠিন কাজ। কিন্তু ম্যাকাউট সেই সমস্ত বিষয় পর্যালোচনা শুরু করেছে এবং সংশ্লিষ্ট বিষয় নিয়ে প্রশিক্ষণ শুরু করেছে। 


মাননীয় উপাচার্য মহাশয় জানিয়েছেনবেশ কিছু জায়গায় কাজের সুযোগ বাড়ছে।

·         ডেটা সায়েন্স

·         Data Analytics

·         ডেটা /সাইবার সিকিউরিটি

·         আর্টিফিসিয়াল ইন্টেলিজেন্স

·         ব্লকচেন/ ক্রিপ্টোগ্রাফি / ক্রিপ্টোকারেন্সি

·         ভার্চুয়াল রিয়েলিটি

·         Multimedia & Animation

·         ডিজিটাল মার্কেটিং

·         ই-কমার্স, ই- পেমেন্ট  






 


 

 

 মৌলানা আবুল কালাম আজাদ প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়

 

পরীক্ষা নিয়ামক (ড.) শুভাশিস দত্ত 

উপাচার্য মহাশয় ও পরীক্ষা নিয়ামকের বিশেষ কিছু ঘোষণা ;

·       আলোচনা করে ঠিক করেছি সমস্ত পঠনপাঠন যেন অনলাইনে করা যায় তার জন্য সকলকেই প্রস্তুত থাকতে হবে। ঠিক হয়েছে, বাড়ি থেকেই পড়ুয়ারা ক্লাস করতে পারবে এবং অধ্যাপকদের লেকচার কন্টেন্ট অনলাইনে দেওয়া হবে। পাশাপাশি যেখানে ইন্টারনেট পরিষেবা ভাল নেই সেখানে পেন ড্রাইভে করে লেকচার কন্টেন্ট পাঠানো হবে। যেখানে কম্পিউটারের পরিষেবা নেই সেখানে লেকচার কন্টেন্ট প্রিন্ট করে পাঠানো হবে। সেগুলি কোথাও বুঝতে অসুবিধা হলে অধ্যাপকের থেকে সেগুলি ফোন করে বুঝে নিতে পারবে পড়ুয়ারা।  অর্থাৎ বাড়িতে বসেই যেন পড়ুয়ারা শিক্ষার সমগ্র প্রক্রিয়ার সঙ্গে যুক্ত থাকতে পারে সে দিকে আমাদের নজর রয়েছে। এই বিষয়ে কলেজ কর্তৃপক্ষরাও আমাদের সাহায্য করেছেন।  এভাবে পুরো প্রক্রিয়াকে ঢেলে সাজানো হচ্ছে।

·         আমাদের কাছে খবর রয়েছে ম্যাসিভ ওপেন অনলাইন কোর্স (মুকস) থেকে ৪০%-৫০% ক্রেডিট ট্রান্সফার হতে পারে। অর্থাৎ যারা বাড়িতে বসেও পড়াশুনা করবে তারাও  শিক্ষার সমগ্র প্রক্রিয়ার সঙ্গে যুক্ত থাকবে।

·         লকডাউনের প্রথম দুমাসে ১ লক্ষ ৭৫ হাজার অনলাইন ক্লাস নিয়েছেন বলে শিক্ষকেরা পোর্টালে তথ্য দিয়েছেন। অনেকে তথ্য দিতেও পারেননি। ওই অনলাইন ক্লাসে ৬০ লক্ষ পড়ুয়ারা ক্লাস করেছেন।

·         আগামী দিনে যে সমস্ত পেশা আসতে চলেছে সেদিকে নজর রেখে প্রশিক্ষণ শুরু হয়েছে।  আগে বহু মানুষকে কাজের জন্য শহরে আসতে হতো। এবারে ইন্টারনেটের সাহায্যে ঘরে বসেই কাজ করার যাবে। ওয়ার্ক ফর্ম হোম সংস্কৃতি চালু হতে চলেছে।

·         অগস্টের প্রথমেই কমন এন্ট্রান্স টেস্ট ও জেইম্যাট এর সম্ভাবনা। বাড়ি থেকে পরীক্ষা দিতে পারার জন্য সুবিধা।

·         দ্রুত পিজিইটি - বিষয়ে বিজ্ঞপ্তির সম্ভাবনা। পরীক্ষা অগস্টেই হতে পারে। 

·         পরবর্তী পরিস্থিতিতে দেশে বিনিয়োগের সম্ভাবনা। উদ্যোক্তা বা শিল্পোদ্যোগীদের কাছে সুবর্ণ সুযোগ। আমরা সেদিকেও নজর রাখছি।  আরও বেশি করে উদ্যোক্তা বা শিল্পোদ্যোগী তৈরিতে ম্যাকাউট চেষ্টা করছে। 

  ম্যাকাউটের বিষয়ে বিস্তারিত জানার জন্য ক্লিক করুন 

 

https://makautwb.ac.in

ধন্যবাদ

 


1 টি মন্তব্য:

বাড়িতে বসেই বিনামূল্যে শিখুন Animated Presentation

  বাড়িতে বসেই বিনামূল্যে শিখুন Animated Presentation     অতিমারীর সময় থেকেই অনলাইন শিক্ষা প্রায় আবশ্যিক হয়ে উঠেছে। তাই অন...